ইনফার্নো


WISHLIST


Overall Ratings (2)

Muhammad Mosharrof Hussain
09/04/2020

বুক রিভিউ বই : ইনফার্নো লেখক : ড্যান ব্রাউন আমি সচরাচর বুক রিভিউ তেমন একটা দেই না।কিন্তু ইনফার্নো এমন একটা বই যার রিভিউ না দিলে পাপ হবে...!!! আপনি যদি সিম্বল,কোড,পাজল,ইতিহাস,স্থাপনা এবং জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এর প্রতি আগ্রহ থাকে তাহলে নিঃসন্দেহে বইটি আপনার জন্য বেস্ট।সব ধরনের পাঠকমহলের জন্যেও আমি মনে কই এই বই পড়া উচিত।কারন আপনি এর মধ্য দিয়েই প্রবেশ করবেন দান্তের ইনফার্নো তে। নরকের ধাপে ধাপে আপনার জন্য টুইস্ট 🔥 "খোঁজো,তাহলেই তুমি পাবে"অলিঘিয়েরি দান্তের এই একটি লাইন মাথায় নিয়ে ইতালির ফ্লোরেন্স শহরের এক হাসপাতালে জেগে উঠলেন রবার্ট ল্যাংডন।রবার্ট একজন আমেরিকান এবং হাভার্ডের প্রফেসর।সে একজন সিম্বলজিস্ট।শব্দ থেকে ছবি তার মাথায় সবচেয়ে বেশি থাকে।জেগে ওঠার পর থেকেই ল্যাংডন কিছুই মনে করতে পারে না।তার অ্যামনেশিয়া শুরু হয়।এর মধ্যেই হসপিটালে তার সিয়েনা ব্রুকস নামের এক ডাক্তারের সাথে পরিচয় হয়।এসবের মধ্যে কিছু বুঝে ওঠার আগেই একের পর এক হামলা চলতে থাকে ল্যাংডনের ওপর এবং সিয়েনা তাকে নিয়ে পালিয়ে যায়।এরপরেই রবার্ট তার জ্যাকেটের ভেতর বায়োহ্যাজার্ড সাইন সম্বলিত এক সিলিন্ডার খুঁজে পায়।সে সিলিন্ডারের ভেতরে প্রোজেক্টরের মাধ্যমে সে খুঁজে পায় বত্তিচেল্লির আঁকা " ম্যাপ অফ হেল" অর্থাৎ দান্তের নরকদর্শন।কিন্তু সে স্পষ্ট বুঝতে পারে যে এই চিত্রকর্ম টি কেউ খুব সুন্দরভাবে চেঞ্জ করে দিয়েছে।সেখানে সে কিছু সিম্বল এবং পাজল্ড ওয়ার্ড খুঁজে পায় এবং এ রহস্য সমাধানের জন্য সে ইতালি শহর চষে বেড়ায়।সে বুঝতে পারে এই ম্যাপের পাঠোদ্ধার করতে না পারলে মানবজাতি চরম হুমকির সম্মুখীন হবে।রেনেসা যুগের সব ঐতিহাসিক স্থাপনা,ভবন,স্থান জুড়ে তার বিচরন শুরু হয়।এর মধ্যে ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন (WHO) এবং গুপ্তগোষ্ঠী সংস্থা কনসোর্টিয়াম তার পেছনে লাগে।কনসোর্টিয়ামের ক্লায়েন্ট ছিল জোবরিস্ট নামের এক বায়োকেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার।তিনি ট্রান্সহিউম্যানিজম সৃষ্টি করতে চেয়েছিলেন।তিনি এমন এক ভাইরাস তৈরি করেছিলেন জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এর মাধ্যমে যেটা পুরো মানবজাতির সংখ্যা তিন ভাগের এক ভাগে নামিয়ে আনবে।সে ভাইরাস তিনি লুকিয়ে রাখেন এবং দান্তের মৃত্যুমুখোশে কিছু সংকেত দিয়ে যান।এর জন্য কনসোর্টিয়াম তাকে হেল্প করে।বাট যখন তারা জানতে পারে জোবরিস্টের এই প্ল্যান মারনঘাতী এবং সে জৈব অস্ত্রের মাধ্যমে বায়োটেরোরিসম চালাচ্ছে এবং সে ভাইরাস ছড়াতে যাচ্ছে পৃথিবীতে তখন তারা WHO এর সাথে একজোট হয়ে যায়।এদিকে রবার্ট কে WHO রিক্রুট করে তাদের হয়ে কাজ করার জন্য কিন্তু রবার্ট কিছু মনে করতে পারে না।সে একটা ইলিউশনের মধ্যে থাকে।এরপর তার স্মৃতি ফিরে আসে একটু একটু করে।পরবর্তীতে সে এই সংকেত পাঠোদ্ধার করার জন্য ইতালির অলিগলি,জাদুঘরের এক প্লাজা থেকে অন্য প্লাজা ঘুরে বেড়াতে থাকে।তার সাথে থাকে WHO, কনসোর্টিয়াম এবং বাকি অন্যরাও।পৃথিবীকে বায়োওয়েপনের হাত থেকে বাঁচাবার জন্য চলতে থাকে তার এডভেঞ্চার। শেষ পর্যন্ত কি সে বাঁচাতে পেরেছিল পৃথিবীর মানুষকে ভাইরাসের হাত থেকে?জানতে হলে অবশ্যই থ্রিলারে পরিপূর্ণ বইটি পড়ে ফেলতে হবে...!!! বইটি সাজানো হয়েছে ইতালিয় কবি অলিঘিয়েরি দান্তের মহাকাব্য ডিভাইন কমেডির ইনফার্নোর আদলে।ইতালিক ভাষায় ইনফার্নো মানে নরক...!!!


Amatullah Tasmin
29/03/2019

বুক রিভিউ ২ বই: ইনফার্নো লেখক:ড্যান ব্রাউন অনুবাদ :মোহাম্মদ নাজিম উদ্দীন . ইতালীয় বিখ্যাত কবি দান্তের মহাকাব্য 'দ্য ডিভাইন কমেডির একটা অংশ হলো "ইনফার্নো"। যার অর্থ ভূগর্ভস্থ জগত বা নরক। "আমি সেই ছায়া। বিচরণ করি বিষাদময় শহরে। আজন্ম বিষাদের মধ্য দিয়ে আমি ঘুরে বেড়াই সেখানে।" কাহিনী শুরু হয় ফ্লোরেন্স শহরের এক হাসপাতালে। বিখ্যাত সিম্বলজিস্ট ল্যাংডন চোখ খুলে নিজেকে বাড়ি থেকে হাজার মাইল দূরের হাসপাতালে আবিষ্কার করেন।স্মৃতিভ্রষ্ট ল্যাংডন কিছু মনে করতে পারেনা কিভাবে কি হলো। হ্যালুসিনেশনে দেখতে পায় সাদা চুলের এক মহিলাকে যিনি বলছেন'খুঁজলেই পাবে'।তার পর খুজে পায় তার জামার পকেটে অদ্ভুত আর ভীতিকর একটি জিনিস।ঘটতে থাকে একরে এক পর সহিংস ঘটনা।পদে পদে খুনের হাত থেকে ল্যাংডনকে বাঁচাতে গিয়ে জড়িয়ে পড়েন তরুণ নারী সিয়ানা ব্রুকস।সিয়েনাকে নিয়ে ল্যাংডন ফ্লোরেন্স জুড়ে ছুটে বেড়ায় রহস্যের কিনারা করার আশায়। . মার্কিন লেখক ড্যান ব্রাউন রচিত রহস্য ও রোমাঞ্চ উপন্যাস হলো "ইনফার্নো"। এটি প্রথম প্রকাশিত হয় ২০১৩ সালে। ইনফার্নো লেখকের সৃষ্ট চরিত্র রবার্ট ল্যাংডনকে নিয়ে চতুর্থ বই। এটি একটি তথ্যবহুল রোমাঞ্চ উপন্যাস।অনুবাদক নাজিম উদ্দীন অনুবাদ বেশ সাবলীলভাবে করেছেন। বানান ভুল ছিলো কিছু।তা ছাড়া আর তেমন কোনো সমস্যা দেখিনি।উপন্যাসে মনীষি দান্তের বিখ্যাত কিছু উক্তি উল্ল্যেখিত হয়েছে। "যারা ক্রাইসিসের সময় ভালো এবং মন্দের মধ্যে নিরপেক্ষতা বজায় রাখে, নরকে তাদের জন্য বরাদ্দ রয়েছে সবচেয়ে খারাপ স্থান"।যার থ্রিলার ভালোবাসে, সিম্বোলিজম,রহস্য ভালবাসেন তাদের জন্য ড্যান ব্রাউনের মতো ইনফার্নোও বিশাল এক ভরসার জায়গা।বইটি নিয়েওয়াশিংটন পোষ্টে বলা হয়েছে এবার কোনো গুপ্ত ইতিহাস নয়, নিকট ভবিষ্যতে হয়ত অপেক্ষা করছে গা শিউরে উঠার মত দুর্যোগ, যার ব্যাপারে আমরা বালিতে মুখ গুজে রয়েছি। # বইবাজার_রিভিউ_প্রতিযোগিতা_মার্চ_২০১৯


SIMILAR BOOKS

PAYMENT OPTIONS

Copyrights © 2018 BoiBazar.com